সোমবার , ৭ নভেম্বর ২০২২ | ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ নিউজ
  8. খুলনা বিভাগ
  9. খেলাধুলা
  10. চট্টগ্রাম বিভাগ
  11. চাকরি
  12. জাতীয়
  13. ঢাকা বিভাগ
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম

বাঘায় নিয়ম বহিঃভূত ম্যানেজিং কমিটি গঠন ও নিয়োগ প্রক্রিয়া চালানোর অভিযোগ।

প্রতিবেদক
তন্ময় দেবনাথ রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি।
নভেম্বর ৭, ২০২২ ৫:৩২ অপরাহ্ণ

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাজুবাঘা ইউনিয়নের নওটিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অবৈধ ভাবে ম্যানেজিং কমিটি গঠন এবং কমিটি দ্বারা তড়িঘড়ি জনবল নিয়োগ কার্য সম্পূর্ণ করার প্রক্রিয়া চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির এক অভিভাবক সদস্য অবৈধ ভাবে গঠিত কমিটি বাতিলের লক্ষ্যে বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড এর চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত ভাবে অভিযোগ করেছেন। তিনি মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধের আবেদন করেছেন সংশ্লিষ্ট দপ্তর গুলোতে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাঘা উপজেলাধীন নওটিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অবৈধ ভাবে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করে গত ২১ এপ্রিল ২০২২ ইং তারিখে অনুমোদন হয়েছে। দাতা সদস্য, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, বিদ্যোৎসাহী সদস্য এবং অভিভাবক ক্যাটাগরিতে মহিলা সদস্য ব্যাতিরেখে অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে বে-সরকারী স্কুল কলেজ এর নীতিমালা লংঘন করা সহ ভোটার তালিকায় অনেক অভিভাবকদের নাম বাদ দেওয়া হয়েছিল। এছাড়াও মহিলা অভিভাবক থাকা সত্ত্বেও তা বাদ দিয়ে ভোটার তালিকা করা হয়েছিল। অভিভাবকদের ভোটার তালিকাটি প্রদর্শন করা বা কোথাও ঝুলিয়ে দেওয়া হয় নাই।

উক্ত প্রতিষ্ঠানের একজন শিক্ষক নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, ম্যানেজিং কমিটি করার প্রথম রেজুলেশনে মাত্র ২ জন্য অভিভাবক সদস্যের স্বাক্ষর ছিল। পরবর্তীতে স্বাক্ষর জালিয়াতি করে কমিটি দাখিল করা হয়। প্রধান শিক্ষিকা ইচ্ছে মতো তাঁর স্বামীকে সভাপতি এবং তাঁর নিজ বাড়ীতে থাকা আপন ভাগিনাকে অভিভাবক সদস্য হিসাবে মনোনয়ন দিয়েছে। যাহা বে-সরকারী স্কুল কলেজের নীতিমালার বহির্ভূত। বিধায় উক্ত বিদ্যালয়ে অবৈধ্যভাবে গঠন করা কমিটি বাতিলের আবেদন করছি।

অপর একটি অভিযোগে জানা যায়, রাজশাহীর বাঘা উপজেলার নওটিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়টিতে বিধি বহিঃভূত ভাবে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করা হলে উক্ত কমিটির বিরুদ্ধে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড বরাবর অভিযোগ করা হয় এবং রাজশাহীতে বিজ্ঞ জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং-৪৯০/২০২২ বিচারাধীন রয়েছে। মামলা চলমান থাকা সত্ত্বেও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষিকা অফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী, পরিছন্নতা কর্মী, নিরাপত্তা কর্মী, আয়া, সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য অবৈধভাবে আগামী ০৮/১১/ ২০২২ ইং তারিখে নিয়োগ পরীক্ষার দিন ধার্য করেছেন। যা সম্পূর্ণভাবে বেআইনি বলে জানতে পারা যায়।

অভিভাবক সদস্য বলেন, কোন নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে প্রধান শিক্ষিকা তার স্বামীকে সভাপতি করে স্কুলটির শিক্ষার পরিবেশ দারুণ ভাবে ব্যাহত করছে । আগামী ডিসেম্বর-২০২২ইং সালে প্রধান শিক্ষিকা অবসরে যাবেন। এমতাবস্থায় অর্থনৈতিক ভাবে লাভবানের আশায় তড়িঘড়ি করে তার স্বামীকে সভাপতি করে উক্ত নিয়োগ কার্য সম্পূর্ন করার প্রক্রিয়া করছে প্রধান শিক্ষক।

এদিকে বিধি বহিঃভূত ভাবে কমিটি গঠন করা এবং আদালতে মামলা চলমান থাকার পরও প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি নিজের ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে জনবল নিয়োগ এর প্রক্রিয়া চালানোর বিষয় নিয়ে এলাকায় বাসীরা ব্যপক ক্ষুব্ধ। এমতাবস্থা চলতে থাকলে এলাকায় যেকোন ধরনের অপ্রিয়কর ঘটনার সৃষ্টি হতে পারে বলে ধারণা এলাকাবাসীরা।

প্রধান শিক্ষক হাছনা বানু বলেন, নিয়মতান্ত্রিক ভাবেই আগামী কাল (৮ নভেম্বর ২০২২) মঙ্গলবার নিয়োগ পরিক্ষার সম্ভব্য তারিখ ধার্য করা হয়েছে। আদালতে একটি মামলা চলমান আছে, যদি বিজ্ঞ আদালত নিয়োগ প্রক্রিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জাড়ি করে তবে পরিক্ষা বন্ধ থাকবে। তিনি আরো বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক এবং অফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী নেই আবার আমিও ডিসেম্বর মাসেই অবসরে যাচ্ছি। প্রতিষ্ঠানটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে নিয়োগ দেওয়াটাও জরুরী।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আমজাদ হোসেন কে ফোনে না পাওয়াতে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আ ফ ম হাসান বলেন, কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির ও নিয়োগ জটিলতায় আদালতে মামলা চলে থাকলে আমি নিয়োগ বোর্ডের কর্মকর্তা হলেও নিয়োগ বন্ধ রাখব। আমি প্রয়োজনে আমার উর্ধতন অফিসার কে জানিয়ে নিয়মনীতির মধ্যে কাজ করব ইনশাআল্লাহ।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, আমার জানামতে নিয়োগ পরিক্ষা স্থগিত রয়েছে। তবে অফিসিয়াল ভাবে অনুমতি পেলে তারা নিয়োগ পরিক্ষা নিতে পারবে।

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত