শুক্রবার , ১৪ এপ্রিল ২০২৩ | ১লা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ নিউজ
  8. খুলনা বিভাগ
  9. খেলাধুলা
  10. চট্টগ্রাম বিভাগ
  11. চাকরি
  12. জাতীয়
  13. ঢাকা বিভাগ
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম

মোংলা-খুলনা রেলপথ ব্যবহার করবে ভারত নেপাল ভুটান

প্রতিবেদক
মোঃ রুবেল খান মোংলা বাগেরহাট।
এপ্রিল ১৪, ২০২৩ ১০:১০ অপরাহ্ণ

মোঃ রুবেল খান মোংলা বাগেরহাট।
মোংলা বন্দরের মাধ্যমে আমদানি করা পণ্য সারাদেশে সহজে পরিবহন করতে সরকারের অগ্রাধিকার ভিত্তিক উন্নয়ন প্রকল্প মোংলা- খুলনা রেল লাইনের কাজ প্রায় সমাপ্তির পথে। ইতিমধ্যে প্রকল্পটির ৯৬ দশমিক ৬ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাকী কাজ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করতে পারলে অক্টোবরের শুরু থেকে মোংলা বন্দর থেকে ট্রেন যাবে খুলনায়। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে প্রকল্পের উন্নয়ন কাজ। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে চলতি বছরের অক্টোবর মাসেই পণ্য এবং যাত্রী সেবায় আওতায় আসবে মোংলা-খুলনা রেল লাইন। এটি চালু হওয়ার পর দক্ষিণ- পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনীতিতে আমূল পরিবর্তন আসবে।

প্রকল্প অফিস সূত্রে জানা গেছে, মোংলা-খুলনা রেললাইন প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছিল ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে। এ প্রকল্পে ব্যয় হচ্ছে ৪ হাজার ২৬০ কোটি টাকা। রূপসা নদীর ওপর ৫ দশমিক ১৩ কিলোমিটার দীর্ঘ রেল সেতুর কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। খুলনার ফুলতলা থেকে মোংলা বন্দর পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার রেললাইনের মধ্যে ৮৫ কিলোমিটার নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। বর্তমানে খুলনার বিল ডাকাতিয়া, লতা, মোস্তফার মোড়, আড়ংঘাটা, রূপসার জাবুসা, ফকিরহাটের ভট্টখামার, মহিষখামার, কাজীবাড়ি ও বেরবাড়ি এলাকায় ৫ কিলোমিটার রেললাইন নির্মাণ কাজ চলছে।
প্রকল্পের আওতায় নির্মাণ করা হচ্ছে ৮টি রেলস্টেশন। এর মধ্যে ফুলতলা, আড়ংঘাটা, মোহাম্মদনগর ও দিগরাজ স্টেশন নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। কাটাখালি, চুলকাঠি, বাঘা ও মোংলা স্টেশন নির্মাণ চলমান রয়েছে।
টেলিকমিউনিকেশন ও সিগন্যালিং সিস্টেম স্থাপনের কাজ ৫০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। এ ছাড়া ৯টি স্থানে ভেহিকেল আন্ডারপাস (ভিইউপি) তৈরি হচ্ছে। এগুলোর অ্যাপ্রোচ সড়ক তৈরির কাজ চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে ভিইউপির ৯০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এগুলো সম্পন্ন হলে ট্রেন চলাচলের সময় রেল ক্রসিংগুলোতে যানবাহন আটকা পড়বে না। এ ছাড়া দুর্ঘটনারও ঝুঁকি থাকবে না।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মীর এরশাদ আলী বলেন, ট্রেন চালু হলে মোংলা বন্দরের সঙ্গে রেলপথে যাতায়াত সুবিধার পাশাপাশি আরও গতিশীল হবে বন্দরটি। এ ছাড়া রেলপথে সুন্দরবনে যাওয়ার পথ সুগম হবে, বাড়বে পর্যটক। প্রকল্পটি সম্পন্ন হলে ঢাকা, গাজীপুর, সাভার ও খুলনা ব্যবসায়ীরা রেলপথে মোংলা বন্দরে পণ্য আনা-নেওয়া করতে পারবে। লোকজন স্বল্প খরচ ও সময়ে খুলনা থেকে মোংলায় যাওয়া-আসা করতে পারবে। এ ছাড়া ভারত, নেপাল ও ভুটান এই রেলপথ ব্যবহার করতে পারবে।
মোংলা বন্দরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এইচ এম দুলাল বলেন, প্রকল্পটি সম্পন্ন হলে মোংলা বন্দর ব্যবহারে ভারত বাণিজ্য বাড়াতে আরও আগ্রহী হবে। ৭৩ বছর আগে বন্দর প্রতিষ্ঠিত হলেও এতদিন বন্দরের সঙ্গে রেল যোগাযোগ ছিল না। এখন ব্যবসায়ীরা অধিক সুবিধা ভোগ করবে। পর্যটকরা ট্রেনে করে মোংলা পর্যন্ত গিয়ে এরপর নৌযানে সুন্দরবন ভ্রমণে যেতে পারবে।

সর্বশেষ - এক্সক্লুসিভ নিউজ

আপনার জন্য নির্বাচিত

নোয়াখালীতে মন্দিরে চুরি, গ্রেফতার ৩

মোংলায় পৌর যুবলীগের দুই নেতার অসাংগঠনিক কার্যক্রমের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

মোংলায় কোস্টগার্ডের অভিযানে ১৮০০ লিটার চোরাই ডিজেলসহ আটক ১

কোম্পানীগঞ্জে দুটি হাসপাতাল সিলগালা

ঠাকুরগাঁওয়ে ভুট্টাক্ষেতে পড়ে ছিল মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে তথ্য প্রযুক্তিতে পারদর্শীতার বিকল্প নেই – এমপি শাওন

মনপুরায় জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থানের বকনা বাছুর বিতরণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা: এ জেড এম জাহিদ হোসেন

পটুয়াখালীতে শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি ১২ ঘণ্টার মধ্যে র‍্যাবের হাতে আটক

বিএনপি জামাত নৈরাজ্যের ও আগুন সন্ত্রাসের দল-এমপি শাওন