রবিবার , ২ জুলাই ২০২৩ | ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ নিউজ
  8. খুলনা বিভাগ
  9. খেলাধুলা
  10. চট্টগ্রাম বিভাগ
  11. চাকরি
  12. জাতীয়
  13. ঢাকা বিভাগ
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম

করোনার ফ্রন্টলাইনার পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম সানতু কর্মউদ্যোগে এখনো সক্রিয়

প্রতিবেদক
স্টাফ রিপোর্টার।।
জুলাই ২, ২০২৩ ৮:৩৯ অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর অর্জনের পাল্লা, সুনামের খাতা প্রতিনিয়ত বেড়ে যাচ্ছে। পুলিশ বাহিনীর অর্জনের আড়ালে, বিহাইন্ড দ্য সিনে মাস্টারমাইন্ড হিসেবে নিঃস্বার্থভাবে অনেকে কাজ করে থাকেন। যারা দায়িত্বের জায়গা থেকে পুলিশ বাহিনীর জন্য সর্বোচ্চভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। একজন নেতা যেমন কর্মীদের অনুপ্রেরণা দিয়ে নেতৃত্ব প্রদান করে সংগঠনকে এগিয়ে নিয়ে যান, একজন কোচ যেভাবে কনফিডেন্স লেভেল তৈরি করে শিষ্যের কাছ থেকে সেরাটুকু বের করে আনেন। পুলিশ কর্মকর্তাদের মধ্য অনেকে শত বিপদে, প্রতিকূলতার মধ্যে বট গাছের ন্যায় আগলে রাখেন অধীনস্থ পুলিশ কর্মকর্তা,কর্মচারী, সদস্যদের। নিজের সর্বোচ্চ চেষ্টা আর শ্রমের সমন্বয়ে সন্তুষ্ট করেন সেবাপ্রার্থীদের। নিজেকে উজার করে বিলিয়ে দেন মানবসেবায়। এমনই একজন মানবিক হৃদয় সম্পন্ন পুলিশ কর্মকর্তা হলেন পুলিশের জীবন্ত কিংবদন্তী, রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের
পুলিশ সুপার (অপারেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট) সাইফুল ইসলাম সানতু।

ইতোপূর্বে তিনি পুলিশ বাহিনীর বিভিন্ন পদে যথেষ্ট সুনাম ও দক্ষতার সহিত দায়িত্ব পালন করে পেশাদারিত্ব অক্ষুণ্ণ রেখেছেন। মানুষের অতন্ত্র প্রহরী হয়ে খুন,ধর্ষণ, মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, চাদাঁবাজ, ইভটিজারসহ অপরাধ মুক্ত করে মানুষের মাঝে শান্তি ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছেন।’ “পুলিশ জনগণের বন্ধু” তিনি এই বাক্যটির উৎকৃষ্ট নিদর্শন হয়ে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। তিনি ধনী-গরিব, রিক্সাচালক হতে সব শ্রেণি পেশার মানুষকে সমান চোখে দেখেছেন।

তিনি একজন সৎ, আদর্শবান, ন্যায়নিষ্ঠ ও গরিবের বন্ধুসুলভ পুলিশ অফিসার। সবাই তাকে গরিবের বন্ধু,মানবিক পুলিশ কর্মকর্তা হিসাবে জানেন। তিনি তাঁর সততা, ন্যায়নিষ্ঠা ও বিচক্ষণ বুদ্ধিমত্তা দিয়ে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে যোগদানের পর হতে এ হাসপাতালে যে আধুনিকতার ছোয়া, পরিবর্তনের হাওয়া, কাজের গতিশীলতা, সফলতা, এসব কিছুর পেছনে তাঁর যথেষ্ট অবদান রয়েছে। তিনি একজন ব্যতিক্রমধর্মী পুলিশ অফিসার। করোনাকালীন মহামারীতে ফ্রন্টলাইনার হয়ে মানবিকতার দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে অসংখ্য মানুষের হৃদয়ে স্মরণীয় হয়ে আছেন।করোনায় সারাদেশ যখন লকডাউন, তখন তার জীবনের অনিশ্চয়তা আর ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও তার মানবিক হৃদয়কে অর্পণ করেছেন হাসপাতালে আসা আক্রান্ত রোগীদের ওপর। বিবেকের ব্যাকুলতায় আক্রান্ত রোগীদের পাশে এসে বাড়িয়েছেন সহায়তার কোমল দু’হাত। তার ভূমিকায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন পুলিশের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা।

তিনি শুধু একজন পুলিশ কর্মকর্তাই নন পাশাপাশি অনেক সামাজিক কর্মকান্ডে তিনি অবদান রাখছেন। পুলিশের রুটিন ওয়ার্কের বাইরেও এ পুলিশ কর্মকর্তা অনেক মানবিক কাজ করে যাচ্ছেন দেশ এবং জাতির কল্যাণের জন্য। তিনি একজন সৎ, নিঃস্বার্থ, নির্লোভ, সহজ-সরল, মানবিক পরিচ্ছন্ন ও রুচিশীল ডায়ানামিক পুলিশ সুপার হিসেবে স্থাপন করেছেন অনন্য উদাহরণ। সাইফুল ইসলাম সানতু বলেন, আমি জনগনের সেবক হিসেবে কাজ করি। পুলিশ জনগণের বন্ধু ও সেবকও। পুলিশ সব সময়ই জনগণের বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে ছিল এবং আগামীতেও থাকবে।

সর্বশেষ - এক্সক্লুসিভ নিউজ