শুক্রবার , ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ নিউজ
  8. খুলনা বিভাগ
  9. খেলাধুলা
  10. চট্টগ্রাম বিভাগ
  11. চাকরি
  12. জাতীয়
  13. ঢাকা বিভাগ
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম

বাকপ্রতিবন্ধী ভিক্ষুক নারীর বয়স্ক ভাতার টাকা জালিয়াতি করে খাচ্ছে ইউপি সদস্য

প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২৩ ৪:১১ অপরাহ্ণ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি।
ঠাকুরগাঁওয়ে সহিরন বেওয়া নামে এক বাকপ্রতিবন্ধী বিধবা ভিক্ষুক নারীর বয়স্ক ভাতার টাকা জালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে মো: ফারুক নামের স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নে ঘটনাটি জানাজানি হবার পর উক্ত বিষয়ে ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ তদন্ত করছেন সমাজসেবা অধিদপ্তর। এমন অসংখ্য অভিযোগের সমাধানে লাইভ ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে প্রকৃত ভাতা ভোগীদের হাতে সরকারি অর্থ পৌছাতে কাজ করছে সমাজসেবা অধিদপ্তদর। তবে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সদুত্তর দিতে পারেননি
অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মোঃ ফারুক।

সরেজমিন ঘুরে দেখাযায়, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামের মৃত মুনিরউদ্দীনের স্ত্রী ৯৩ বছর বয়সী সহিরন বেওয়া জীবিকা নির্বাহ করেন ভিক্ষাবৃত্তি করে। স্বামী মারা যাবার পর একমাত্র ছেলেকে নিয়ে অন্যের জমিতেই বসবাস করছেন। বয়স্ক ভাতার কার্ড হয়েছে বেশ কয়েক বছর আগে। ২০২০ সালের জুন মাস পর্যন্ত ব্যাংকের মাধ্যমে বয়স্ক ভাতা পেয়েছেন সহিরন।

পরে মোবাইলে ভাতা দেওয়া শুরু হলে ইউপি সদস্য ফারুক ছেলে শাকিলের মোবাইল নম্বর দেয় সহিরনের মোবাইল নম্বরের স্থানে। র্দীঘদিনেও সহিরন ভাতার টাকা না পেয়ে ইউপি সদস্য ফারুকের সাথে যোগাযোগ করলে সহিরনের ভাতার কার্ডটি নষ্ট হয়েছে বলে জানিয়ে দেয় ফারুক। চলতি মাসে উপজেলা সমাজসেবা অফিসের মাধ্যমে সহিরন জানতে পারেন তার ভাতার কার্ড বন্ধ হয়নি বরং টাকা যাচ্ছে ইউপি সদস্য ফারুকের ছেলে শাকিলের মোবাইল নাম্বারে । বিষয়টি এখন ওই ইউনিয়নে মানুষের মুখে মুখে।

এমন অসহায় নারীর বয়স্ত ভাতার টাকা আত্মসাত করায় ইউপি সদস্য ফারুকের শাস্তির দাবি করছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়রা বলছেন সরকারি ভাতা করে দেওয়ার নামে আরও অনেকের কাছে টাকা নিয়ে ভাতা করে দেননি ইউপি সদস্য ফারুক।

ঠাকুরগাঁও সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক আল মামুন জানান, অভিযোগ রয়েছে মৃত মানুষের ভাতা পাচ্ছে অনেকে। আর বেশ কিছু ক্ষেত্রে প্রকৃত ভাতাভোগীর টাকা যাচ্ছে অন্যের মোবাইলে যারা সেই টাকা আত্মসাৎ করছেন। এ বিষয়ে লাইভ ফেরিফিকেশন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। লাইভ ফেরিফিকেশন দ্রুত সময়ে শেষ হলে প্রকৃত ভাতাভোগীদের আর অভিযোগ থাকবেনা। এছাড়াও সহিরনের অভিযোগটির তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্য, ঠাকুরগাঁওয়ে বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৩৯ হাজার ৪৬৫ জন।

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত

জেলেদের ভাগ্য পরিবর্তনে সরকার কাজ করছেন – এমপি শাওন

ঠাকুরগাঁও ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযানে ৩ ব্যবসায়ীর জরিমানা

একটি হারানো বিজ্ঞপ্তি

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে হতদরিদ্রদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রি বিতরন

রংপুরে প্রধানমন্ত্রীর আগমনে ঠাকুরগাঁও পৌরসভার আনন্দ শোভাযাত্রা।

নাজনীন সরোয়ার কাবিরী’র সাথে ঘুমধুম ইউনিয়ন আ’লীগ ও যুবলীগ নেতাদের সৌজন‌্য সাক্ষাত

ভোলায় আরো ও ৯টি কূপ খননের পরিকল্পনা করছে সরকার (নসরুল হামিদ বিপু)

লালমোহনে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক ঘর উত্তোলনে অসহায় ভুক্তভোগী

পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু রোধে সচেতনতার কোন বিকল্প নেই – এমপি শাওন

মানবতার পাশেই আমরা সেচ্ছাসেবী সংগঠনের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত