https://www.crimebanglanews.com/
ঢাকাবৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৫:৩৩
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বাউফলে গৃহবধূ হত্যায় জড়িত সন্দেহে আটক-১

কহিনুর বাউফল (পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃ
ডিসেম্বর ৩, ২০২১ ১০:০১ অপরাহ্ণ
পঠিত: 66 বার
Link Copied!

পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার ফেরদৌস বেগম নামের এক গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে মোঃ আউয়াল ও তার ছেলে মোঃ রাশেদ (২০) নামে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ ।বুধবার সন্ধ্যার দিকে কালাইয়া থেকে ঢাকাগামী বন্ধন-৫ দোতালা ল থেকে মোঃ আউয়াল ও তার ছেলে রাশেদকে আটক করা হয় । এসময় তার বাবা মোঃ আউয়াল (৫২) কে জিজ্ঞসাবাদের পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে এবং রাশেদকে বৃহস্পতিবার সকালে পটুয়াখালী কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।
নিহত গৃবধূর স্বামী জাকির হোসেন বলেন, ফেরদৌসের পায়ে ব্যাথা ছিল।

এ কারণে গত ২৯ অক্টোবর সকালে তিনি চিকিৎসা নেওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হন। এরপর আর বাড়ি ফেরেননি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে ৩১ অক্টোবর আমি বাউফল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করি। পরে ১২ নভেম্বর সন্ধ্যার পর তাঁদের বাড়ি থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে দাসপাড়া ভুরভূরিয়া খালের পাশে ঝোপ-জঙ্গলের মধ্যে থেকে পুলিশ আমার স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় পরের দিন আমার স্ত্রীর ছোট ভাই মো. মহিউদ্দিন অজ্ঞাত আসামি করে বাউফল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলার বাদী মহিউদ্দিন বলেন,‘পূর্ব বিরোধের জেরে আমার বোনকে হত্যা করা হয়েছে। আমার বোনের লাশ পাওয়া গেছে ১২ নভেম্বর । অথচ ৯ নভেম্বর রাশেদ এক ব্যক্তির কাছে বলে ফেরদৌস বেগম খুন হয়েছে, খোঁজাখুঁজি করে লাভ নাই’।

তিনি আরও বলেন, ঘটনার পর থেকে রাশেদ ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের আচরণ স্বাভাবিক ছিল না। এসব বিষয় আমি পুলিশকে জানালে তাঁরা রাশেদের গতিবিধি লক্ষ্য করে আসছিলেন। রাশেদ বিষয়টি টের পেয়ে ল যোগে ঢাকায় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বুধবার সন্ধ্যার দিকে পুলিশ নিমদি ঘাটে বন্ধন-৫ দোতালা লে তল্লাশি চালিয়ে শৌচাগারের মধ্যে থেকে তাকে আটক করে।

মামলার তদন্তকারী অফিসার বাউফল থানার ওসি (তদন্ত) মো. মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,‘জিজ্ঞাসাবাদের পর আউয়ালকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে এবং রাশেদকে হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।’