https://www.crimebanglanews.com/
ঢাকাবৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৪:৪১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নোয়াখালীতে নৌকার নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
ডিসেম্বর ২২, ২০২১ ৬:৩১ অপরাহ্ণ
পঠিত: 77 বার
Link Copied!

নোয়াখালী সদর উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবদুর রবের নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ওবায়দুল কাদের সহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের ছবি ও চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করেছে প্রতিপক্ষ ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী জসিম উদ্দিনের সমর্থকরা।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) দুপুরে ইউনিয়নের শান্তিরহাট বাজারে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিসে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার প্রতিবাদে বিকালে শান্তিরহাট বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করেছে নৌকা প্রতীকের কর্মী-সমর্থকরা।

নৌকার প্রার্থী আবদুর রব বলেন, আমি দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে নির্বাচনী মাঠে আসার পর আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের আলী হায়দার বকশি এবং ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী জসিম উদ্দিনের লোকজন আমার কর্মী-সমর্থকদের হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছে। গত সোমবার চৌরাস্তা বাজারে আমার নির্বাচনী অফিসে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে বকশির লোকজন।
আবদুর রব বলেন, আজ (বুধবার) দুপুরে শান্তিরহাট বাজারে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের ভাড়া করে এনে সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আরমান চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি মিছিল করায় ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী জসিম উদ্দিন। ওই মিছিল থেকে বেশ কয়েকজন হেমলেটধারী যুবক আমার নির্বাচনী প্রধান কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এসময় তারা কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে অফিয়ে থাকা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ওবায়দুল কাদের সহ জেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের ছবি এবং চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করে।
তিনি বলেন, প্রতিপক্ষ স্বতন্ত্র প্রার্থী আলি হায়দার বকশি ও জসিম উদ্দিন দল থেকে বহিষ্কার হয়ে নৌকার অফিসে আগুন ও ভাংচুর করেই ক্ষান্ত হননি, তাদের হামলা থেকে বাদ পড়েনি বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিও।

বিক্ষোভ মিছিলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সাহাব উদ্দিন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রুবেলসহ দলীয় নেতাকর্মী ও নৌকা প্রতীকের কর্মী-সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় তারা বলেন, নৌকা প্রতীক কোন ব্যক্তির নয়, এটি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক। যারাই নৌকা মার্কার অফিসে হামলা করেছে, তারা আর যাই হোক আওয়ামী লীগের কোন কর্মী হতে পারেনা। আজকে তাদের কাছে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাও নিরাপদ নয়। আমরা এই ঘটনার বিচার দাবি করছি।

অভিযোগ অস্বীকার করে চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী জসিম উদ্দিন বলেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবদুর রব জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনে তার লোকজন দিয়ে নিজের অফিস ভাংচুর করে আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। একটি সুষ্ঠু নির্বাচন বানচাল করতে পরিকল্পিত এসব ঘটনার ঘটনো হচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওস) মো. সাহেদ উদ্দিন বলেন, ওখানে তিন প্রার্থী একে-অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে যাচ্ছেন। আজকের বিষয়ে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ বিষয়ে থানায় এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি।  অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।